Featured

আদিতমারী উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের মাঝে কি নিয়ে দ্বন্দ্ব?

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের দীর্ঘ দিন থেকে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এ দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্যে রুপ নিয়েছে বলে দাবি করছেন উপজেলা পরিষদের একাধিক লোকজন।

জানা গেছে, দুঃস্থ মহিলাদের সহায়তার জন্য মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আওতায় ভিজিডি প্রকল্প চালু করে সরকার। সম্প্রতি সেই প্রকল্পে উপকার ভোগীদের তালিকা প্রস্তুতে কাজ শুরু হয়। নিয়ম অনুযায়ী আবেদন গুলো যাচাই-বাছাই করে উপজেলা কমিটিতে জমা দিবেন ইউনিয়ন পরিষদ। উপজেলা কমিটি তা চুড়ান্ত অনুমোদন দিবেন। সেই ভিজিডিতে ‘ভাগ’ দাবি করেন উপজেলা প‌রিষদের চেয়ারম্যান।

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সকাল থেকেই উপজেলা পরিষদ হল-রুমে মাসিক সভা চলছিলো। এ সময়, ভিজিডিতে ‘ভাগ’ দাবি করেন উপজেলা চেয়ারম্যান। বিধি মোতাবেক ‘ভাগ’ দেয়ার সুযোগ নেই বলে জানান ইউএনও। এ নিয়ে সভায় বিতর্কের সৃষ্টি হলে সভাস্থল ত্যাগ করে নিজ অফিসকক্ষে চলে যান উপজেলা চেয়ারম্যান।

এ‌দি‌কে, লোক দিয়ে উপজেলা পরিষদে সিসি ক্যামেরায় কাজ করাচ্ছিলেন চেয়ারম্যান। সেই কাজ কার নির্দেশনায় হচ্ছে, এমন প্রশ্নে চেয়ারম্যান নিজের নির্দেশনায় করছেন বলে ইউএনওকে জানান। এ সময়, মোবাইলে ছবি তুলতে গেলে ইউএনওকে তাঁর বাবা তুলে গা‌লিগালাজ করেন চেয়ারম্যান। এতে দ্বিতীয় দফায় উভয়ের মাঝে বেশ উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। উপস্থিত কর্মকর্তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে- তাঁদেরও অকথ্যভাষায় গালিমন্দ ও মারধরের হুমকী দেন চেয়ারম্যান।

খবর পেয়ে, আদিতমারী থানার পু‌লিশ প‌রিদর্শক (ওসি) সাইফুল ইসলাম ফোর্স নিয়ে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন এবং উপজেলা পরিষদ চত্বরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেন।
পরে, ইউএনও মোঃ মনসুর উদ্দিন উপজেলার সকল কর্মকর্তাদের নিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে জেলা প্রশাসকের কাছে গিয়ে বিচার দাবি করেন। জেলা প্রশাসক (ডি‌সি) মোঃ আবু জাফর কর্মকর্তাদের অভিযোগ শ্রবণ করে তা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেন।
এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তা জানান, শুরু থেকে ইউএনও-চেয়ারম্যান দ্বন্দ্ব চলে আসছে। চেয়ারম্যান প্রায় সময় কর্মকর্তাদের দ্বিতল ভবন থেকে ফেলে দেয়ার হুমকীসহ অকথ্যভাষায় গালমন্দ করেন। মাসিক সভায় ভিজিডির ‘ভাগ’ না পাওয়ায় ইউএনওকে গালমন্দ করে সভা থেকে বেড়িয়ে যান চেয়ারম্যান।
আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ মনসুর উদ্দিন বলেন, ঘটনা সম্পর্কে জেলা প্রশাসকসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। তাঁর অনিয়মের বিরোধীতা করায় প্রায় সময় অফিসারদের সাথে অসৌজন্য আচরণ করেন চেয়ারম্যান। যা নিয়ে কর্মকর্তারা ক্ষিপ্ত।
উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েস বলেন, কোনো ধরনের আলোচনা ছাড়াই ইউএনও তাঁর একক সিদ্ধান্তে কাজ করছেন। আশ্রয় প্রকল্প-২ এবং এডিপির কাজ নিজেই করছেন ইউএনও। তাঁর নানা অনিয়মের প্রতিবাদ করায় আমার উপর অফিসারদের ক্ষেপিয়ে ডিসি অফিসে গেছেন ইউএনও। কর্তৃপক্ষ তদন্ত করুক। তদন্ত করলে সত্যতা বেরিয়ে আসবে।
লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক (ডি‌সি) ‌মোঃ আবু জাফর জানান, অফিসারদের কথা শুনে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। এ বিষয়ে জানতে উপজেলা চেয়ারম্যানকে অফিসে ডাকা হয়েছে।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker