Featured

কালাইয়ে জুতা পরেই ইউএনওসহ প্রজাতন্ত্রে কর্মচারীদের প্রভাত ফেরী!

কালাইয়ে জুতা পরেই ইউএনওসহ প্রজাতন্ত্রে কর্মচারীদের প্রভাত ফেরী!মো. আতাউর রহমান, কালাই(জয়পুরহাট)প্রতিনিধি: জয়পুরহাটের কালাইয়ে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে জুতা পরে প্রভাত ফেরীতে অংশ নেয়ার ঘটনায় নানা সমালোচনার মুখে পড়েছে ইউএনওসহ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা।

জুতা পরে প্রভাত ফেরিতে অংশ নিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি চরম অবজ্ঞা ও অবমাননা করা হয়েছে। খোদ কালাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র হালদার এবং তার অধীনস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ গর্হিত ও দুঃসাহসিক কাজ করায় এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা অব্যাহত রয়েছে।
সকাল ৯ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বের হওয়া প্রভাত ফেরীতে কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র হালদার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাকিব হাসান তরফদার, কৃষি কর্মকর্তা রেজাউল করিমসহ বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেয়। এতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলনসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ যথারীতি খালি পায়ে অংশ নিলেও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র হালদার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাকিব হাসান তরফদার, কৃষি কর্মকর্তা রেজাউল করিমসহ বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী জুতা পরেই প্রভাত ফেরী করায় বিষয়টি বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি করে।
এর আগে দিবসের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের স্মরণে কালাই উপজেলা শহীদ মিনারে উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, প্রেসক্লাবের পক্ষে পুষ্প স্তবক অর্পণ করা হয়।
জুতা পরে প্রভাত ফেরীতে অংশ নেয়ার বিষয়ে গণমাধ্যাম কর্মীরা জানতে চাইলে কালাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র হালদার কোন কথা না বলে দ্রুত ওই স্থান ত্যাগ করেন।
এ বিষয়ে কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন বলেন, মাতৃভাষার জন্যে অকাতরে প্রাণ বিসর্জন দেয়ার ঘটনা বিরল। তার স্বীকৃতি স্বরূপ প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারিতে ভাষা শহীদদের সম্মান দিয়ে বিশ্বজুড়ে পলিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এ অর্জন কম নয়। কিন্তু খোদ কালাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র হালদার তার অধীনস্ত কর্মকর্তাদের জুতা পরে প্রভাত ফেরীতে অংশ নেয়ার অনুমতি দিয়ে যে দুঃসাহস দেখালেন, তা ভাষা শহীদদের প্রতি চরম অবমাননা ছাড়া আর কিছুই নয়। এদের শিক্ষা, যোগ্যতা ও নীতিবোধ কতটুকু পরিপূর্ণ তা নিয়ে জাতি সন্দিহান!

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker