Featured

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে

http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2015/11/32156.jpgতিস্তা নিউজ ডেস্ক: সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ অব্যাহত রয়েছে।

ঢাকার বকশীবাজার এলাকার উমেশ দত্ত রোডে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে অস্থায়ী বিশেষ আদালতে এ মামলার বিচার চলছে। বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের আদালতে সকাল পৌনে ১১ টার দিকে আজ সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

আদালতে আজ খালেদা জিয়া অনুপস্থিত ছিলেন। তার আইনজীবী এডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া জানান, সুস্থতা সাপেক্ষে আগামী ধার্য তারিখে খালেদা জিয়া আদালতে হাজির হতে পারেন। আদালত খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতির আবেদন মঞ্জুর করে এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাক্ষীর জেরা ও নতুন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের আদেশ দেয়।
খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডনে থাকায় এর আগেও মামলায় কয়েকটি ধার্য তারিখে আদালতে হাজির হতে পারেননি। এ জন্য তার পক্ষে আইনজীবীরা হাজিরা প্রদান করেন। চিকিৎসার জন্য প্রায় দুই মাস লন্ডনে থেকে গত ২১ নভেম্বর দেশে ফেরেন বিএনপি চেয়ারপার্সন। এরপর গত ২৬ নভেম্বর মামলার ধার্য তারিখেও অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আদালতে হাজির হননি খালেদা জিয়া। তার পক্ষে আইনজীবীর হাজিরা মঞ্জুর করে আদালত। তবে গত ৩০ নভেম্বর নাইকো সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পান বেগম জিয়া। ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এম আমিনুল ইসলাম নাইকো মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে আদেশ দেন।
আজ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার ২২তম সাক্ষী (জব্দ তালিকার সাক্ষী) সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের এসইভিপি জিয়াউদ্দিন এম ঘুর্নিকে আসামিপক্ষে জেরা শুরু করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। খালেদা জিয়ার পক্ষে জেরা করবেন সিনিয়র এডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান। পর্যায়ক্রমে মামলায় ইতোপূর্বে সাক্ষ্য দেয়া ২৩ থেকে ২৫তম সাক্ষী ডাচ-বাংলা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার কামরুজ্জামান এবং দুদকের দুই কনস্টেবল মঞ্জুরুল হক ও সিরাজুল হককে জেরা করবে আসামিপক্ষ।
মামলার ২৬তম সাক্ষী দুদকের সহকারী পরিচালক নাজমুল আহসান আদালতে সাক্ষ্য দিতে হাজির হন। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় এ পর্যন্ত সাক্ষ্য দেন ২৫ জন সাক্ষী।
এছাড়াও উচ্চআদালতে ‘লিভ টু আপিল’ থাকায় আসামিপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ মুলতবি রেখেছে আদালত। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় এ পর্যন্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশিদ। তাকে আসামিপক্ষে জেরা অসমাপ্ত রয়েছে।
দুদকের পক্ষে আইনজীবী মোশররফ হোসেন কাজল বাসস’কে বলেন, প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন খালেদা জিয়া এ ষ্ট্রাস্ট করেছেন। যা আইনত করা যায় না। ষ্ট্রাষ্টের অর্থ তারা নিজেরা লাভবান হতে ব্যয় ও আত্মসাৎ করেছেন।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় দুদক মামলা দায়ের করে। এ মামলায় ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক অভিযোগপত্র দাখিল করে। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাষ্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের নামে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ। ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি এ মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। গত ১৯ মার্চ দুই মামলায় খালেদা জিয়া ও তার বড় ছেলে বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩।

তথ্যসূত্র: বাসস

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close