Featured

ডিমলায় হিরোইনের প্রবেশ: মাদকের নীল ছোবলে আক্রান্ত যুবকরা

ডিমলায় হিরোইনের প্রবেশ: মাদকের নীল ছোবলে আক্রান্ত যুবকরা

হামিদা বারী, স্টাফ রিপোর্টার: উত্তরের জেলা নীলফামারীর সীমান্তবর্তী প্রতিবেশী দেশ ভারতের বেড়াকাঁটা তার সংলগ্ন তিস্তা নদীর অববাহিকায় অবস্থিত একটি উপজেলা  ডিমলা। এ উপজেলার সর্বত্রই এখন মাদকে সয়লাব।

প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রবেশ করছে মরণ নেশা  হিরোইনসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য। ভয়াবহ এসব মাদকের নীল ছোবলে আক্রান্ত হচ্ছে ডিমলা উপজেলার তরুণ ও যুব সমাজ। প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাদকের এ ভয়াল গ্রাস থেকে রক্ষার প্রচেষ্টা চলছে প্রতিনিয়ত। কিন্তু তারপরও অসাধু ও ধুরন্তর মাদক ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের এ চেষ্টাকে ব্যর্থ প্রমানিত করে মাদকে সয়লাব করে দিচ্ছে ডিমলা। ধ্বংসের দিকে ঠেঁলে দিচেছ তরুণ ও যুব সমাজকে। আর এসব মাদকে আক্রান্ত তরুণ ও যুবকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। জিরো থেকে হিরো বনে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ডিমলা উপজেলার ঠাকুরগঞ্জ বাজার, ডাঙ্গারহাট সুইপার পট্টি, টুনিরহাট (একটু পশ্চিমে জনৈক্য ব্যক্তির বাড়ী), খগারহাট (হিলিপট মাঠ সংলগ্ন জনৈক্য ব্যক্তির বাড়ী), ভাটিয়া পাড়া (জনৈক্য ব্যক্তির বাড়ী), ডালিয়া ছোটখাতা, বাইশপুকুর, তিস্তা ব্রীজের আশে পাশে ও নুতন বাজার নামক স্থানে, ঝুনাগাছ চাপানী বাজার, বাঘেরপুল, ডিমলা সদরের মেডিকেল মোড় ও তার দক্ষিনে জনৈক্য ব্যক্তির বাড়ী, খোকশার ঘাটসহ আরো বেশ কিছু স্থানে সন্ধা হলে চলে মাদকের ছরাছরি। এসব নির্দিষ্ট জায়গা ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা ওরফে বাবা, চোলাই মদ, নেশা জাতীয় ইনজেকশন ও নেশা হয় এমন সিরাপ সাথে ট্যাবলেটসহ নানা মাদকদ্রব্য পাওয়া যায় হরহামেশাই। সন্ধা হলেই উল্লেখিত জায়গাগুলিতে চলে মাদকের মহোৎসব। উপজেলা সদরে এসব মাদক সেবনে বেশী আসক্ত হয়ে পড়েছে এবং পড়ছে তরুন সমাজ।

দেশের সীমান্তবর্তী উপজেলা হওয়ায় বর্ডার এলাকা ঠাকুরগঞ্জ, কালিগঞ্জ, ঝাড়শিংহেশ্বর, কিসামতের চর, টাপুরচর, একতার বাজার, ঠ্যাংঝাড়া, বাইশপুকুর, ঝুনাগাছ চাপানী রুটে তিস্তানদী পথে ও বেড়াকাঁটা অতিক্রম করে হিরোইন, মদ, গাঁজা, ও ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য ভারত সীমান্ত থেকে পাঁচার করে এনে দেশের অভ্যন্তরে ঢুকিয়ে দেদারছে ব্যবসা করছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

 মাদক সেবনকারী নাম প্রকাশে অনৈচ্ছুক বেশকিছু যুবক জানায়, ইদানিং দিনাজপুরের একটি চক্র দশমাইল ভায়া বীরগঞ্জ ভায়া খানসামা উপজেলা দিয়ে নীলসাগর হয়ে ডোমার উপজেলার মধ্যে দিয়ে ডিমলায় ঢুকছে ইয়াবা ওরফে বাবা, গাঁজা ও হিরোইন। এসব মাদক পরিবহনে ব্যবহার করা হচ্ছে নুতন নতুন মডেলের ১৫০ সিসি মোটরসাইকেল। যাতে করে প্রশাসনের সন্দেহের তালিকায় মাদক ব্যবসায়ীরা না আসে। উল্লেখ্য, ডিমলা থানা পুলিশ গত কয়েক মাসে বেশ কিছু মাদক বিক্রেতাকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে কারাদন্ড ও জরিমানা করিয়েছন এবং অনেককেই আবার জেল-হাজতেও পাঠিয়েছেন।

সম্প্রতি পার্শ্ববর্তী ডোমার উপজেলার গোলাম রাব্বানী নামের এক যুবককে হিরোইন বিক্রির অপরাধে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হলে  জেল-হাজাতে প্রেরণ করেছেন ডিমলা থানা পুলিশ। কিন্তু এরপরও প্রশাসনের নিয়ন্ত্রনে আসছে না মাদক ব্যবসায়ীরা। লাগামহীন ভাবে চলছে এ মাদক ব্যবসা।

এ ব্যাপারে ডিমলা থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাদক বিরোধী অভিযান জোরদার করা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হচ্ছে। এ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যে অনেককে জরিমানা ও জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker