Featured

তিন শিশুকে বেঁধে লাঠিপেটা : ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ডিসি-এসপি

তিন শিশুকে বেঁধে লাঠিপেটা : ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ডিসি-এসপি তিস্তা নিউজ ডেস্ক, নাটোর: নাটোরের বাগাতিপাড়ায় দোকানে চুরির চেষ্টার অভিযোগে তিন শিশুকে রশি দিয়ে বেঁধে লাঠি পেটার ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন নাটোর জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান এবং জেলা পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার মুখার্জী। সোমবার দুপুরে তারা এ পরিদর্শন করেন।

এর আগে সকালে উপজেলা পরিষদ হল রুমে সদ্য যোগদানকারী জেলা প্রশাসক সুধীজনদের সাথে এক মতবিনিময় করেন। পরে তারা উভয়েই ঘটনাস্থল উপজেলার মাকুপাড়া বাজারে আসেন। সেখানে নির্যাতনের শিকার রুমনের সাথে কথা বলেন।

পরে জনতার উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান বলেন, বাগাতিপাড়া উপজেলা শিক্ষা, কৃষি ক্ষেত্রে জেলার মধ্যে এগিয়ে রয়েছে। কিন্তু শিশু নির্যাতনের এমন ঘটনা উপজেলার সকল অর্জনকে নষ্ট করে দেয়।

নারী-শিশু নির্যাতন, বাল্যবিয়ে, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের শক্ত অবস্থানের কথা উল্ল্যেখ করে তিনি বলেন, এমন কোন ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রচারের ফলে ওই অঞ্চলের মানুষ সম্পর্কে খারাপ ধারণার পাশাপাশি উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়। পরিদর্শনকালে তাদের সাথে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খোন্দকার ফরহাদ আহমদ, এএসপি রফিকুল ইসলাম, থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুর রহমান।

উল্লেখ্য, বাগাতিপাড়া উপজেলার মাকুপাড়া বাজারে ব্যবসায়ী সরলের কম্পিউটারের দোকানে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে চুরির চেষ্টা হয়। এ সময় বাজারের নৈশপ্রহরী নজরুল ইসলাম পাঁকা গ্রামের রমজান আলীর সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলে রুমনকে আটক করে বাজার কমিটির সভাপতি ইমাজ উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমানকে জানান।

বাজার কমিটির লোকজন চুরি চেষ্টায় রুমনের সাথে জড়িত সন্দেহে রাতেই মাকুপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলে মেহেদী ও একই গ্রামের সিদ্দিকের চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলে ফিরোজকে আটক করে। পরদিন শুক্রবার বিকেলে স্কুল মাঠে সালিশের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিশু তিনজনকে পেছনে দড়ি দিয়ে হাত বেঁধে বাঁশের লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। শিশু রুমন ও মেহেদীকে প্রথমে পাঁচ হাজার টাকা করে এবং ফিরোজের দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিভাবকদের কাছ থেকে জরিমানার টাকাও নিয়ে নেয়া হয়।

শুক্রবার রাতেই ফিরোজকে এবং পরদিন শনিবার সকালে মেহেদীকে চিকিৎসার জন্য বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরে আহত শিশু ফিরোজের পিতা সিদ্দিক প্রামানিক এ ব্যাপারে বাজার কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ শনিবার সকালে বাজার কমিটির সভাপতি ইমাজ উদ্দিনকে আটক করে। রোববার দুপুরে মামলায় অভিযুক্ত অপর চারজনের মধ্যে ব্যবসায়ী শাহাকুল ইসলাম, জার্মান আলী ও নজরুল ইসলাম নাটোরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এ আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করলে আদালতের বিচারক মোমিনুল ইসলাম তাদের জামিন না মঞ্জুর করে চারজনকেই কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker