জাতীয়

প্রবৃদ্ধিতে বিশ্বের পাঁচ দেশের একটি বাংলাদেশ

http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2016/01/665544.jpgতিস্তা নিউজ ডেস্ক : আওয়ামী লীগকে ত্যাগ স্বীকারকারী দল বলে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এই দল ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নয়ন হয়। এখন  দেশের মানুষ স্তস্তিতে আছে।  দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে।  সব সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রবৃদ্ধি অর্জনে বিশ্বের পাঁচটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ একটি। আমরা দক্ষতার সঙ্গে দেশ পরিচালনা করছি বলে এটি সম্ভব হয়েছে।”

শনিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সভায় এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৯১ সালের নির্বাচনে কিন্তু বিএনপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। কিন্তু তারা বলে যে সংখ্যারিষ্ঠতা পেয়েছে। এটি তাদের অপপ্রচার।

পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতিক্রিয়ার জবাবে আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, “উনি বলেছেন, ওখানে (কেন্দ্রে)নাকি পুলিশ ছিল আর কুকুর ছিল।  অথচ ভোটিং অফিসার ছিল, সাংবাদিক ছিল, ভোটার ছিল। সবাইকে উনি কুকুর হিসেবে দেখলেন। যখন মানুষের জলাতঙ্ক হয় তখন সবাইকে কুকুর দেখে। ওনার দৃষ্টিতে সব কুকুর হয়ে গেল।”

৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনের দ্বিতীয় বছর পূর্তি উপলক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির এক জনসভায় খালেদা জিয়া বলেছিলেন, ৫ জানুয়ারির একতরফা নির্বাচনে কেউ ভোট দিতে যায়নি। ভোটকেন্দ্রে কুকুর আর পুলিশ পাহারায় ছিল।

বিএনপির নেত্রীকে লক্ষ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কত বড় অডাসিটি্- মানবসন্তান ও ভোটারদের কুকুর হিসেবে দেখলেন। এত বড় নোংরা কথা জঘন্য কথা গালি উনার মুখে সাজে।” এ ধরনের কথা বলা থেকে বিরত থাকা এবং তওবা করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “যারা মানুষ পুডিয়ে মারে, ভোটারদের কুকুর বলে, তার জবাব জাতির কাছে একদিন দিতে হবে।”

আওয়ামী লীগকে ত্যাগ স্বীকারকারী সংগঠন  হিসেবে উল্লেখ করে  শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে, তখন দেশে উন্নয়ন হয়। এ সময় তিনি ১৯৯৬ সালে একবার ও ২০০৮ সালের পর থেকে দুবার ক্ষমতায় আসার প্রেক্ষাপট ও তিনবারের সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “২০০৮ সালে নির্বাচনী ইশতেহার ছিল ভিশন-২০২১। ২০২১ সালের মধ্যে আমরা বাংলাদেশকে কীভাবে গড়ে তুলতে চাই, সেটাই ভিশন। শুধু তাই নয়- এখনই আমাদের মাথাপিছু আয় বেড়েছে, বৈদেশিক রিজার্ভ বেড়েছে। বিশ্বস্বীকৃতি পেয়েছি। আমরা দক্ষতার সঙ্গে দেশ চালিয়েছি বলেই এমনটা পেরেছি।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “১২ জানুয়ারি আমরা শপথ গ্রহণ করেছিলাম। টানা দ্বিতীয়বার আমরা দেশ চালাচ্ছি এবং দ্বিতীয় মেয়াদে দুই বছর পূর্ণ হবে আগামী ১২ জানুয়ারি।”

শেখ হাসিনা বলেন, “প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা জয়, ভারতের সঙ্গে স্থলসীমানা চুক্তি- সব আমাদের সময়ই হয়েছে। এ ছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে ছিটমহল/ভূমি নিয়ে যুদ্ধ হয়, ঝামেলা হয়। কিন্তু বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে তা হয়নি। এটি আমরা পেরেছি।”

বৈঠকে আওয়ামী লীগের জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ বাড়ানোর কথা বলেন সভানেত্রী শেখ হাসিনা। ২০তম জাতীয় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ এবং তার প্রস্তুতির জন্য উপ-কমিটি গঠনের কথা বলেন তিনি। আওয়ামী লীগের ১৯তম জাতীয় সম্মেলন হয়েছিল ২০১২ সালের ২৯ ডিসেম্বর। ওই কমিটির মেয়াদ গত ২৯ ডিসেম্বর শেষ হয়।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close