Featured

ভারতের টেকসই উন্নয়নের স্বার্থেই সমৃদ্ধ বাংলাদশ প্রয়োজন: দিল্লীতে এ কথা বলেন পানি সম্পদ মন্ত্রী

http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2015/11/5128.jpgতিস্তা নিউজ অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে টেকসই উন্নয়নের স্বার্থে শেয়ার ভিশনের ভিত্তিতে পানি ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার উপর গুরুত্বারোপ করেছেন বাংলাদেশের পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।
আজ (সোমবার) ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ‘ওয়াটার ইনোভেশন সামিট ১৫’ শীর্ষক এক সম্মেলনে যোগ দিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি গঙ্গা ও তিস্তার পানি সরবরাহ হ্রাসের কথা উল্লেখ করে বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ যে পানি পাচ্ছে ,তা দিয়ে উন্নয়ন তো দূরের কথা নদী বাঁচনোও সম্ভব নয়।
তিনি বলেন, ২০১১ সালে তিস্তার পানি বল্টন চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার কথা থাকলেও, আজো তা হয়নি। বাংলাদেশ আশাবাদী যে ভারত যতশিগগির সম্ভব এই চুক্তি সম্পন্নের ব্যবস্থা করবে।
‘ওয়াটার ইনোভেশন সামিট ১৫’ শীর্ষক এ সম্মেলনের আয়োজন করে কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাষ্ট্রিজ (সিআইআই) ।
আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন শেয়ার ভিশনের কথা বারবার বলা হলেও এ ব্যাপারে কার্যত কোনো রকম সহযোগিতা ও উদ্যোগ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।
মন্ত্রী বলেন, ২০১১ ও ২০১৫ সালে বাংলাদশ সফরে এসে ভারতের তদানিন্তন ও বর্তমান দুই প্রধানমন্ত্রী যৌথ বেসিন ম্যনেজমেন্টের বিষয় উল্লেখ করলেও এ ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত কার্যকর কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি ।
তিনি বলেন ঐকমত্যের ভিত্তিতে পানি ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের অবস্থানের কথা বারবার উত্থাপন করছেন প্রধানমন্ত্র্রী শেখ হাসিনা। কারণ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন যে সুষ্ঠু পানি ব্যবস্থাপনা ছাড়া উন্নযন সম্ভব নয় ।
ঐকমত্যের ভিত্তিতে পানি ব্যবস্থপনার মাধ্যমে পানি সমস্যার সমাধান এবং খাদ্য নিরাপত্তা গড়ে তোলার লক্ষে আয়োজিত এ সম্মেলনের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে ভারতের পানি সচিব শশী শেখর, আই সি সি কো চেয়ারম্যান এ কে রঙ্গনাথন, বিশ্ব ব্যংকের আবাসিক প্রতিনিধি অন্ন রুল অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন। বিকেলের অধিবেশনের বক্তৃতা দিবেন ভারতের পানি সম্পদ মন্ত্রী উমা ভারতি।
আনিসুল ইসলাম প্রতিবেশী দেশটির বিশালত্ব ও দ্রুত উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে বলেন, ভারতের টেকসই উন্নয়নের স্বার্থেই সমৃদ্ধ বাংলাদশ প্রয়োজন । বাংলাদশের উন্নয়নে ভারতের সহযোগিতার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হানিসার দূরদর্শী নেতৃত্বের সুবাদে আজ দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যকার আস্থা ও বন্ধুত্ব উত্তরোত্তর সুদৃঢ় ও সম্প্রসারিত হচ্ছে।
পানি সম্পদ মন্ত্রী গঙ্গা ও তিস্তার পানি সরবরাহের সার্বিক চিত্র তুলে ধরে বলেন , গত বছর বাংলাদেশ গঙ্গায় তিন লাখ কিউসেক পানি পেয়েছে। কিন্তু এবার পাচ্ছে মাত্র ১ লাখ কিউসেক ।
তিস্তার পানি সরববারহ সম্পর্কে তিনি বলেন, গত বছর বাংলাদেশ তিস্তায় পানি পেয়েছে ১৫ শ’ কিউসেক এবং এবার পেয়েছে মাত্র ২৩২ কিউসেক ।
মন্ত্রী বলেন গঙ্গা, মেঘনা ও ব্র´পুত্র, এই তিন বড় নদীর পানির একমাত্র আউট লেট হচ্ছে বাংলাদশ । বর্ষা মৌসূমে এই তিন নদী থেকে ৯৩ শতাংশ পানি পেলেও শুষ্ক মৌসুমে বাংলাদেশকে নদী বাচাঁনোর মতোও পানি দেয়া হয় না।
তিনি এ অঞ্চলের সামগ্রিক উন্নয়নে মতৈক্যের ভিত্তিতে দ্রুত পানি ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার উদ্যোগ নিতে বিশেষভাবে ভারতের প্রতি আহ্বান জানান। তথ্যসূত্র: বাসস

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close