Featured

রৌমারীতে খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে স্বামীকে হত্যা !

http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2016/01/images0.jpgরাজীবপুর (কুড়িগ্রাম)থেকেরুহুল সরকার:
কুড়িগ্রামের রৌমারীতে পরিকল্পিত ভাবে খাবারের সঙ্গে বিষাক্ত কীটনাশক মিশিয়ে স্বামীকে হত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নিহতের মা তারা বানু বাদি হয়ে থানায় মামলা করলে পুলিশ বুধবার রাতেই খুনি স্ত্রী আশুরা খাতুনের ছোট বোন হেনা পারভীনকে গ্রেপ্তার করেছে। নিহতের স্ত্রী পলাতক থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি বলে জানিয়েছে পুলিশ। উপজেলার শৌলমারী সবজু পাড়া গ্রামের মঙ্গলবার দিবাগত রাতের ঘটনা এটি।

রৌমারী থানা পুলিশ ও অভিযোগে জানা গেছে, ঘটনার রাতে স্ত্রী আশুরা খাতুন (২৫) তার বোনের বাড়িতে ডেকে নেয় স্বামী তাহেরুল ইসলামকে (২৮)। পরিকল্পিত ভাবে রাতে ভাতের সঙ্গে বিষাক্ত কীটনাশক মিশিয়ে খাবার দেয় স্বামী। খাওয়া শেষ না হতেই তাহেরুল ইসলাম বুঝতে পারে তাকে বিষ মেশানোর খাবার দেয়া হয়েছে। এসময় তিনি খাওয়া বন্ধ করে চিৎকার করলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে আশংকাজনক অবস্থায় রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এখানে স্বাস্থ্যের আরো অবনতি ঘটলে চিকিৎসকরা তাকে দ্রæত কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। রোগীকে যে বিষাক্ত কীটনাশক জাতীয় কিছু খাওয়ানো হয়েছে তা নিশ্চিত করেন মেডিকেল অফিসার শহীদুল ইসলাম।

কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য রোগীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রংপুরে নেয়ার পথে বুধবার সন্ধা রাতে মারা যায় স্বামী তাহেরুল ইসলাম।

আজ বৃহষ্পতিবার কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে নিহতের লাশ ময়না তদন্ত কার্যক্রম শেষ করে লাশ রৌমারীতে আনা হবে বলে জানিয়েছেন থানা পুলিশ।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ মাস থেকে স্বামী ও স্ত্রী দু’জনের মাঝে বিরোধ চলছিল। এ কারনে স্ত্রী আশুরা খাতুন তার স্বামীর বাড়িতে যাতায়াত বন্ধ করে ছিল ওই ৫ মাস। এর প্রায় ৯ বছর আগে উপজেলার শৌলমারী সবুজপাড়া গ্রামের হবি মোল্লার মেয়ে আশুরা খাতুনের বিয়ে হয় একই উপজেলার ইজলামারী গ্রামের জহর উদ্দিনের পুত্র তাহেরুল ইসলামের সঙ্গে। বিয়ের পর থেকে শান্তিতেই চলছিল তাদের সংসার। তাদের ঘরে দুই ছেলে সন্তানও রয়েছে।

নিহতের মা তারা বানু সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, আমার ছেলে ডেকে নিয়ে বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে ছেলের বউ আশুরা খাতুন এবং বউয়ের বোন হেনা পারভীন। এর সঙ্গে আরো জড়িত থাকতে পারে। আমি ওই নীরব ঘাতকদের ফাঁসির দাবি জানাই।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম সাজেদুল ইসালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এরই মধ্যে হেনা পারভীন নামের এক খুনীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হত্যার মূল পরিকল্পনাকারি নিহতের স্ত্রী আশুরা খাতুনসহ অন্য আসামিরা পলাতক রয়েছে। তবে তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে পুলিশের।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close