Featured

সকল অবকাঠামো থাকা সত্তে¡ও চিলাহাটি পর্যন্ত চলছে না সকল আন্ত:নগর ট্রেন

সকল অবকাঠামো থাকা সত্তে¡ও চিলাহাটি পর্যন্ত চলছে না সকল আন্ত:নগর ট্রেন“মো: হুমাউয়ুন কবির এ্যাপোলো” ডোমার (নীলফামারী) সংবাদদাতা:  ঢাকাগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস, খুলনাগামী আন্তঃনগর সীমান্ত বা রূপসা এক্সপ্রেস ও রাজশাহীগামী আন্তঃনগর বরেন্দ্র এক্সপ্রেসসহ সকল আন্ত:নগর ট্রেন নীলফামারী হয়ে ডোমার ও চিলাহাটি পর্যন্ত চলাচলের জন্য সরকার ১৪৩ কোটি টাকা ব্যয় করে রেললাইনসহ প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সংস্কার করেছে। কিন্তু সংস্কারের দুই বছর পার হলেও সকল আন্ত:নগর ট্রেন এ লাইন দিয়ে চলাচল শুরু করেনি। সংস্কারের আগে নিয়মিত চলতো খুলনাগামী বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ও রাজশাহীগামী তিতুমীর এক্সপ্রেস। আর নতুন করে চলাচল করছে ঢাকাগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস। বর্তমানে সব ধরনের অবকাঠামো থাকার পরেও সকল আন্ত:নগর ট্রেন চলাচল না করায় সরকার প্রচুর পরিমানে রাজস্ব হারাচ্ছে। এবিষয়কে সাধারন জনগন শুভঙ্করের ফাকি বলে মন্তব্য করছে।
নীলফামারী, ডোমার ও চিলাহাটি পর্যন্ত ৫৩ কিলোমিটার রেলপথ ট্রেন চলাচলে পাকা লাইন স্থাপনসহ চিলাহাটি রেলস্টেশনে ট্রেনের কোচ মেরামত, ট্রেন ধৌতকরণ ও পানি নেয়ার সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা থাকা সত্তে¡¡ও কেন ট্রেন তিনটি চিলাহাটি পর্যন্ত চালানো হচ্ছে এমন প্রশ্ন উঠেছে এলাকাবাসীর।
জানা যায়, সা¤প্রতিকালে সৈয়দপুর থেকে নীলফামারী হয়ে ডোমার ও চিলাহাটি পর্যন্ত ৫৩ কিলোমিটার রেলপথটি সংস্কার করা হয় ১৪৩ কোটি টাকা ব্যয় করে। এ ছাড়াও সৈয়দপুর-চিলাহাটি সেকশনে সাতটি রেলস্টেশন আধুনিকায়ন, চিলাহাটি স্টেশনে পরিদর্শন ঘর ও ওয়াশপিট স্থাপনে পৃথক আরেকটি প্রকল্পের কাজ স¤পন্ন করা হয়।
এলাকাবাসী জানায়, ডোমার উপজেলার চিলাহাটি থেকে বর্তমানে দুটি আন্তঃনগর ট্রেন সরকারীভাবে চলাচল করছে। এর ফাঁকে চিলাহাটি থেকে খুলনাগামী একটি মেইল ট্রেন সকালের দিকে বেসরকারীভাবে দীর্ঘদিন যাবত চলে আসছে। চিলাহাটি ডোমার নীলফামারীসহ পার্শ্ববর্তী পঞ্চগড় ও ঠাকুগাঁওয়ের ট্রেন যাত্রীরা চিলাহাটি হয়ে ট্রেনে দীর্ঘদিন যাবত যাওয়া- আসা করে। চিলাহাটি রেল স্টেশন থেকে সপ্তাহে ৬ দিন রাজশাহীগামী তিতুমীর এক্সেপ্রেস ট্রেনটি দুপুর ১.৪৫ মিনিটে চিলাহাটিতে প্রবেশ করে এবং ২.২০ মিনিটে রাজশাহীর উদ্দেশে চলে যায়।
অপরদিকে ঢাকাগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৮টায় ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন থেকে ছেড়ে এসে সন্ধ্যা ৬.২০ মিনিটে চিলাহাটিতে প্রবেশ করে। এখান থেকে আবার রাত ৯.২০ মিনিটে ঢাকা পথে ছেড়ে যায়।
চিলাহাটি স্থলবন্দর বাস্তাবায়ন কমিটির সদস্য গোলাম কুদ্দুস আইয়ুব জানান, সৈয়দপুর থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত ৫৩ কিলোমিটার রেলপথ সংস্কারের পর এখান থেকে আন্তঃনগর খুলনাগামী সীমান্ত এক্সপ্রেস রাতে এবং সকাল আন্তঃনগর খুলনাগামী রূপসা এক্সপ্রেস ও ভোরে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো চলাচল করার কথা ছিল। কিন্তু এই পথে শুধু ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর ও রাজশাহীগামী তিতুমীর ট্রেন চলাচল করছে। বাকি তিনটি ট্রেন নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে চলছে। এতে করে জেলা শহরবাসী, ডোমার উপজেলা শহর ও চিলাহাটি সীমান্তবাসী ওই তিন ট্রেনের সেবা থেকে দীর্ঘদিন ধরে বঞ্চিত হয়ে রয়েছে। অথচ সকালে রাজশাহী বা সকালে কিংবা রাতের ট্রেনে খুলনা যেতে চাইলে তাদের চরম ভোগান্তির মাধ্যমে সৈয়দপুর গিয়ে ট্রেন ধরতে হয়।
সাধারন মানুষজন বলছে ওই তিনটি ট্রেন চিলাহাটি থেকে চলাচল করলে এ এলাকার মানুষজন খুব সহজে সারা দেশের সাথে যোগাযোগ করতে পারবে। এতে এ অঞ্চলের ব্যবসা-বানিজ্যের উন্নতি হবে। সরকারেরও কোটি কোটি টাকা রাজস্ব পাবে।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker