নীলফামারী

সৈয়দপুরে মসজিদ নির্মাণে বাধা প্রদান ও অপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর প্রতিনিধি সৈয়দপুরে তৈয়্যবিয়া জামে মসজিদের নির্মাণে বাধা প্রদান ও অপ্রচারের প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার রাতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শহরের ইসলামবাগ ফিদা আলী মাঠ সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত কাদেরীয়া তাহেরিয়া সাবেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসায় ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মাদ্রাসার সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসনেন ইমাম সোহেল।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, শহরের গোলাহাট চিনি মসজিদ এলাকার আলহাজ্ব আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুল্লাহ-আল মামুন গত ৬ জানুয়ারি শহরের ইসলামবাগ ফিদা আলী মাঠ সংলগ্ন এলাকার ১৩২ শতক জমির ক্রয় বিক্রয় বিষয়ে প্রকৃত তথ্য আড়াল করে সংবাদ সম্মেলন করেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে তাঁর বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে স্থানীয় দুইটি সাপ্তাহিক পত্রিকাসহ বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় ‘সৈয়দপুরে দখলের উদ্দেশ্যে বিচারাধীন জমিতে মসজিদ নির্মাণের অভিযোগ ’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এরই প্রেক্ষিতে মাদ্রাসা কমিটির ডাকা সংবাদ সম্মেলনে প্রকাশিত ওই সংবাদের প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানানো হয়। এতে বলা হয়, শহরের উল্লিখিত এলাকায় ১৩২ শতক জমি ক্রয়ের জন্য আব্দুল্লাহ- আল- মামুন, মো. শাহেদ আলী, মো. আরমান ও মো. আব্দুল রউফ এবং কাদেরীয়া তাহেরিয়া সাবেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার পক্ষে চট্টগ্রামের আঞ্জুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাষ্টের বায়নাপত্র চুক্তি হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু আব্দুল্লাহ আল- মামুন তাঁর ভবিষ্যতের প্রতারণার পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মাদ্রাসাকে বাদ নিয়ে চারজনের নামে বায়নাপত্র রেজিষ্ট্রি করেন। সে সময় অবশ্য বলা হয়েছিল যে ক্রয়কৃত জমি থেকে মাদ্রাসাকে ৭৫ শতক জমি দান করা হবে। সে মোতাবেক জমির ক্রয়কারীরা জমির দখল নিয়ে বিগত ২০১৮ তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত কাদেরীয়া তাহেরিয়া সাবেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসায় চালু করে পাঠদান শুরু করেন।

কিন্তু পরবর্তীতে জমির মালিক জমি দলিল রেজিষ্ট্রি দিতে অস্বীকৃতি জানালে নীলফামারী আদালতে একটি মামলা হয়। বর্তমানে ওই মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। মামলার আরজিতে বায়না গ্রহীতারা মাদ্রাসাকে ৭৫ শতক জমি দানের বিষয়টি উল্লেখ করেন।

পরবর্তীতে জমির বায়না গ্রহীতার একজন আব্দুল্লাহ-আল- মামুন মাদ্রাসার সঙ্গে সম্পৃক্ত না থাকায় জমির ১০২ শতক নিজের বলে দাবি করে বসেন। যা তাঁর একেবারে অন্যায় ও অযৌক্তিক দাবি বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করে বলা হয় মাদ্রাসায় দানকৃত ৭৫ শতক জমির একটি অংশে বর্তমানে তৈয়্যবিয়া জামে মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। অন্যের দখল করা জমিতে মসজিদ নির্মাণের অভিযোগটি আদৌ সত্য নয়। মূলতঃ আব্দুল্লাহ- আল মামুনের অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

তিনি মূলতঃ প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে এ মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন কাদেরীয়া তাহেরিয়া সাবেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসায় সভাপতি অধ্যাপক মো. আব্দুর রউফ, সাধারণ সম্পাদক শাহেদ আলী, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. আরমান, অর্থ সম্পাদক মো. নাসিম ও সুপার মো. রিজওয়ান আহমেদ ও শেখ শহীদুল ইসলাম প্রমূখ।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker