নীলফামারী

সৈয়দপুরে সবজির দাম লাগামছাড়া, বিপাকে ক্রেতারা

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর প্রতিনিধি সৈয়দপুরে সবজির বাজারে আগুন লেগেছে। দামের আঁচে হাত লাগাতে পারছেনা ক্রেতা সাধারন। বিত্ববানদের কাছে এসব দাম তেমন না হলেও লাগামছাড়া নিম্নআয়ের মানুষজন সবজি কিনতে গিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন। তারা সংসারে চাহিদার সবজি অর্ধেকে নামিয়ে এনেছেন। এক সময় ভাতের পরিবর্তে আলু খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হলেও এখন আর সেটি নেই। মানুষজন আলু খাওয়ার নামই ভুলে গেছে।
গত বুধবার সৈয়দপুর আধুনিক পৌর সবজিবাজার, কারখানা গেট সবজিবাজারসহ অন্যান্য বাজার ঘুরে অস্বাভাবিক মূল্যতে লাগামহীন মূল্যে কাঁচা সবজি বেঁচাকেনার দৃশ্য দেখা গেছে। সবজির প্রতিটি দোকান আগুনের তাপে গরম হয়ে উঠেছে। সরকার খুচরা বাজার আলুর সর্বোচ্চ মূল্য ৩০ টাকা কেজি নির্ধারণ করলেও তা মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌর আধুনিক সবজিবাজার ও কারখানা গেটবাজারে সরেজমিনে দেখা যায় প্রতিটি সবজি অগ্নিমূল্যে বেচাকেনা হচ্ছে।
স্মরণকালের রেকর্ড ভেঙ্গে আলু বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি দরে। এছাড়া পটল ৬০ টাকা, সিম ১২০ টাকা, চিচিঙ্গা (কায়তা) ৫০/৬০, টমেটো ১০০/১২০ টাকা, বেগুন ৬০ টাকা, ঝিঙ্গা ৫০ টাকা, কচুর লতি ৬০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, বাঁধা কপি ৫০/৬০ টাকা, করলা ৬৫/৭০ টাকা, কচু ৩৫/৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, কাকরোল ৭০ টাকা, খিরা ৪০/৫০ টাকা, মিস্টি কুমড়া ৩০/৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া লাউ ৪০ টাকা, শোলা কচু ৩০/৩৫ টাকা পিস হিসেবে বিক্রি করতে দেখা গেছে। এদিকে সবজি দামের সাথে সাথে কাঁচামরিচের ঝাঁলও অনেক বেশী বেড়েছে। বাজারে পূর্বের বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে। প্রতিটি বাজারেই কাঁচামরিচ ২০০/২৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমে ৮৫/৯০ টাকা কেজিতে পাওয়া যাচ্ছে। বিভিন্ন ধরণের শাকও ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি করতে দেখা গেছে বিক্রেতাদের।
সংসারের প্রয়োজনীয় ওইসব পণ্যের অগ্নিমূল্যের বিষয়ে সৈয়দপুর আধুনিক পৌর সবজিবাজারে সবজি কিনতে আসা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বাজারে সবজি নিতে এসে দাম শুনে মাথাই ঘুরে গেছে আমার। দামের কারণে বাধ্য হয়ে ফর্দের তালিকা ছোট করেছি। তিনি বলেন গত ২০ বছরেও সবজির এমন মূল্য দেখা যায়নি।
কারখানা গেট বাজারে কথা হয় দোকান কর্মচারি আলাল,হোটেল শ্রমিক ফজলু, কালু, রিক্সাচালক তাসলিমের সাথে। তারা বর্তমানে সবজির বাজারে যে অবস্থা চলছে, তাতে তাদের সবজি কেনা কস্টকর হয়েছে। সবধরণের সবজির মূল্যবৃদ্ধির কারণে ১০০/১৫০ টাকা দিয়েও এক বেলার তরকারি হয় না।
সবজির মূল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে কথা হয় আধুনিক পৌর সবজি বাজারের খুচরা বিক্রেতা মো. আলী ও আজিজার রহমানের সাথে। তারা বলেন সাম্প্রতিক বন্যায় কৃষকদের সবজি ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। চাহিদার চাইতে আবাদের পরিমাণ কমে গেছে। ফলে সবজির মূল্য বৃদ্ধি হয়েছে। আগামী ১৫/২০ দিন পর শীতকালীন নতুন সবজি বাজারে আসলেই দাম কমে আসবে এসবের। তারা বলেন ২/১ দিনের মধ্যে আলুর দাম কমে আসবে। এদিকে শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলের হাট বাজারেও বাড়তি মূল্যে সবজি বিক্রি হচ্ছে।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close