Featured

সৈয়দপুর ও জলঢাকা পৌর নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিল মেয়র-৩ সংরক্ষিত-২ ও কাউন্সিলার-৩

নীলফামারী অফিস: মনোনয়নপত্রে সংযুক্ত একশতজন করে ভোটারের স্বাক্ষর জাল এবং মৃত ব্যাক্তিকে প্রস্তাবক প্রমানিত হওয়ায়http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2015/12/Untitled-15.jpg নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দি ৭ মেয়রের মধ্যে তিন মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

রোববার মনোনয়নপত্র যাছাই বাছাইয়ে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যাওয়া তিন মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর গফুর সরকার, জাতীয়পাটির বিদ্রোহী প্রার্থী জাকির হোসেন ও জামায়াতের পৌর আমির স্বতন্ত্র প্রার্থী হা ফেজ গোলাম মুন্তাকিম। এ ছাড়া সৈয়দপুর পৌরসভায় ১,২,৩ নম্বর ওর্য়াডের সংরক্ষিত নারী প্রার্থী ইয়াছমিন পারভিন মনোনয়পত্রে জন্ম তারিখটি জাতীয় পরিচয়পত্রের সাথে মিল না থাকায় এবং ৪,৫,৬ নম্বর ওর্য়াডের সংরক্ষিত নারী প্রার্থী মুন্নী বেগমের মনোনয়নপত্রে ইনকামট্যাক্সের পিন নম্বর ভুল থাকায় ওই দুইটি মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এ ছাড়া ১৩ নম্বর ওর্য়াডের কাউন্সিলার প্রার্থী কামাল উদ্দিন যাছাই বাছাইয়ে তিনি সহ তার মনোনয়নপত্রে সমর্থক ও প্রস্তাবক হাজির হতে না পারায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

এ ছাড়া জলঢাকা পৌরসভায় ৭ মেয়র ও ১৫ সংরক্ষিত আসনের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাতিল না হলেও ৯টি ওয়ার্ডের ৪৫ জনের মধ্যে দুইজন কাউন্সিলারের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এরা হলো ৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আবেদ আলী ও চার নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আমিনূর রহমান। জেলা নির্বাচন অফিসার জুলহাজ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সুত্রমতে যাছাই বাছাইয়ের পর সৈয়দপুর পৌরসভায় মেয়র পদে এখন রইল চারজন প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী। এরা হলেন সাখাওয়াৎ হোসেন খোকন (আঃলীগ), আমজাদ হোসেন সরকার ভজে (বিএনপি), জয়নাল আবেদীন (জাতীয় পাটি) ও নুরুল হুদা (ইসলামী শাসনতন্ত্র)।

এছাড়া এই পৌরসভায় ১৫টি ওয়ার্ডের সাধারন কাউন্সিলর পদে ৭৬জন এবং ৫টি নারী সংরক্ষিত আসনে ১৮ জন প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায় সৈয়দপুরে মেয়র পদে জামায়াতের পৌর আমির স্বতন্ত্র প্রার্থী হাফেজ গোলাম মুন্তাকিম তার মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবক হিসাবে এক মৃত ভোটারের নাম উল্লেখ করেন। অপর দিকে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর গফুর সরকার ও জাতীয়পাটির বিদ্রোহী প্রার্থী জাকির হোসেন তাদের মনোনয়নপত্রে একশতজন ভোটারের স্বাক্ষরিত সংযুক্তটি জাল প্রমানিত হয়। ফলে তাদের তিনজনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যায়।

অপরদিকে জলঢাকা পৌরসভায় মেয়র পদে ৭ মেয়র প্রার্থীর মধ্যে কারো মনোনয়নপত্র বাতিল হয়নি। ফলে আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর (আঃলীগ) ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী কমেট (বিএনপি), শাহ আব্দুল কাদের বুলু চৌধুরী(জাতীয়পাটি) অধ্যাপক আজিজুল ইসলাম, (জাসদ-ইনু) জামায়াতের পৌর আমীর মকবুল হোসেন (স্বতন্ত্র),শরিফুল ইসলাম(ইসলামী শাসনতন্ত্র) এবং বর্তমান পৌর মেয়র ইলিয়াছ হোসেন বাবুল(স্বতন্ত্র) নির্বাচন মাঠে থাকলেন। অপর দিকে ৯টি ওর্য়াডের ৪৬ জন ওর্য়াড কাউন্সিলন প্রার্থীর মধ্যে দুইজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এরমধ্যে মনোনয়ন পত্র যাছাই বাছাইকালে নয় নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আবেদ আলীর দাখিল করা শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ জাল প্রমানিত হয়। অপরদিকে চার নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আমিনূর রহমান বিধি মোতাবেক নির্বাচনী ব্যয় ৫০ হাজার টাকার স্থলে এক লাখ ৮০ হাজার টাকা দেখিয়েছেন। একারণে ওই দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।’এদিকে তিনটি সংরক্ষিত নারী আসনের ১৫ জন প্রার্থীর কারো মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়নি।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close