নীলফামারী

সৈয়দপুর বিমানবন্দরে আর্মড পুলিশকে মারপিটের ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার-৩


মিজানুর রহমান মিলন,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি: সৈয়দপুর বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বিঘ্নের আশংকায় ভিতরে যেতে নিষেধ করায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আর্মড পুলিশ ব্যাটানিয়নের এক সদস্যকে মারপিট ও রক্তাক্ত জখমের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় আটক তিন যুবককে গ্রেফতার দেখিয়ে আজ রবিবার বিকেলে নীলফামারী জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে শহরের হাতিখানা মহল্লার মো. শরীফের পুত্র মো.ওমর আলী(২৫) ও তাঁর ছোট ভাি হায়দার আলী (২২) এবং একই এলাকার মো.আলী হোসাইনের ছেলে মো. ইজাজ আহমেদ ওরফে রফিক।
আজ রবিবার সকালে সৈয়দপুর বিমানবন্দর প্রবেশের প্রধান ফটকে ওই মারপিটের ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্য সেলিমকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
থানায় মামলার অভিযোগে বলা হয়, ঘটনার দিন রবিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে সৈয়দপুর বিমানবন্দর প্রবেশের প্রধান ফটকে ৮, আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের কনস্টেবল সেলিম, শহীদুল ও মনসুর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় শহরের হাতিখানা এলাকার ওমর আলী,তাঁর ভাই হায়দার আলী ও ইজাজ আহম্মেদ ওরফে রফিক নামের তিন যুবক একই মোটর সাইকেলে ( নং-নীলফামারী-ল-১১ -২৯৪৫) বসে হেলমেটবিহীন অবস্থায় দ্রুতগতিতে বিমান -বন্দরের ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করছিল।
এ সময় সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ কনস্টেবল সেলিম তাদের মোটর সাইকেলটি থামানোর জন্য সিগন্যাল দেন। কিন্তু মোটর সাইকেল আরোহী ওই তিন যুবক পুলিশের সিগন্যাল অমান্য করে বিমানবন্দরে প্রবেশের চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ কনস্টেবল সেলিম দৌঁড়ে গিয়ে মোটর সাইকেলটির সামনে দাঁড়ান। এতে ওই তিন যুবক মোটর সাইকেল থেকে নেমে পুলিশ কনস্টেবল সেলিমের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। পরে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় যুবকদের অকথ্য ভাষা প্রতিবাদ করলে যুবক ওমর আলী ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ কনস্টেবল সেলিমের পরণে থাকা সরকারি পোষাকের কলার ধরে টানাহেঁচড়া করতে থাকে। এ সময় ওমরসহ অপর দুই যুবক আর্মড পুলিশ সদস্য সেলিমের ওপর চড়াও হয়ে এলোপাাতাড়ি কিল ঘুষি মারতে থাকে। এতে পুলিশ কনস্টেবল সেলিমের নাকের হাঁড় ভেঙ্গে যায় এবং তিনি গুরুতর রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হন।
এ সময় তাঁর পরিহিত সরকারি পোষাকের সোল্ডার ও নেমপ্লেট ক্যাসার ছিঁড়ে পোষাকটিও ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ঘটনাটি দেখতে পেয়ে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য শহীদুল, মনসুর ও আনসার সদস্য এলোপতি বর্মণ এগিয়ে গিয়ে পুলিশ কনস্টেবল সেলিমকে তিন যুবকের হাত থেকে রক্ষা করেন এবং সেখানে কর্মরত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল থেকে ওই তিন যুবককে আটক করেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আটককৃতদের থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় ৮, আমর্ড পুলিশ ব্যাটানিয়নের সহকারি- উপ-পরিদর্শক মো. লায়েকুজ্জামান বাদী হয়ে আটক তিন জনের নামে সৈয়দপুর থানায় একটি মামলা করেন।
মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খান জানান, গ্রেফতারকৃত ৩ জনকে আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তাদের সাত দিনের রিমান্ডের জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close