Featured

সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় শ্রমিক লীগের বিক্ষোভ

http://tistanews24.com/wp-content/uploads/2016/01/901.jpgনীলফামারী অফিস: রেলওয়ে বিভাগে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে সুইপার ও হাসপাতাল ক্লিনার নিয়োগের প্রতিবাদে এবং নিয়োগ বাতিলের দাবিতে দেশের বৃহত্তম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় বিক্ষোভ মিছিল ও শ্রমিক সমাবেশ হয়েছে।

পরে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়কের মাধ্যমে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সংগঠনের স্থানীয় কারখানা ও ওপেন লাইন শাখা যৌথ উদ্যোগে ওই কর্মসূচি পালন করা হয়।
সোমবার সকাল ১১টার আগে থেকে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভিন্ন সর্প ও বিভাগের দুই সহস্রাধিক শ্রমিক-কর্মচারীরা সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার মিলরাইট সর্প’র সামনে জড়ো হন। সেখান থেকে শ্রমিক-কর্মচারীদের বিশাল বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে গোটা সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা প্রদক্ষিণ করা হয়। রেলওয়ে কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের ওই বিক্ষোভ মিছিলে শহরের হরিজন সম্প্রদায়ের বিপুল সংখ্যক নারী পুরুষও অংশ নেয়। পরে বিক্ষোভ মিছিলটি কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়কের কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।  সেখানে একটি সংক্ষিপ্ত শ্রমিক সমাবেশ রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক শ্রমিক নেতা মোখছেদুল মোমিন, হরিজন সম্প্রদায়ের নেতা মহাজন বাসফোর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
শ্রমিক সমাবেশে রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক নেতা মোখছেদুল মোমিন তার বক্তব্যে বলেন, সম্প্রতি বাংলাদেশ রেলওয়েতে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে সুইপার ও হাসপাতাল ক্লিনার পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাতে জেলা, মুক্তিযোদ্ধা, পোষ্য কোটাসহ বিদ্যমান কোন কোটায় মানা হয়নি। সবচেয়ে আশ্চর্যজনক ঘটনা হলো সুইপার পদে জাত সুইপারদের নিয়োগ না করে হরিজন সম্প্রদায়ের বাইরে লোকদের নিয়োগ করা হয়। এতে করে দেশের হরিজন সম্প্রদায়ের লোকজন তাদের ন্যায্য অধিকার তথা কর্মেরসংস্থান থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। বর্তমানে হরিজন সম্প্রদারের লোকজন কর্মসংস্থানের অভাবে পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেকটাই মানবেতর জীবনযাবন করছেন। রেলওয়ের নিয়োগ প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত রেলওয়ে কর্মকর্তারা নিজেদের পকেট ভারী করতে একটি চক্রের মাধ্যমে  নিয়োগ বাণিজ্য করে আসছে দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ। তারা এতোটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে কোন নিয়োগ নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে অনিয়তান্ত্রিকভাবে একের পর এক নিয়োগ বাণিজ্য করে যাচ্ছে। নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত চক্রটি নেত্রকোনার একই পরিবারের দুই মেয়েকে এবং টাঙ্গাইলের একই ব্যক্তিকে হাসপাতাল ক্লিনার ও ওয়েটিং রুম বেয়ারার পদে নিয়োগ দিয়ে অনিয়মতান্ত্রিক নিয়োগের একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
সমাবেশে বক্তারা রেলওয়ে বিভাগে সুইপার ও হাসপাতাল ক্লিনার নিয়োগ অবিলম্বে বাতিল করে পুনরায় সকল কোটা ও নিয়োগ নিয়মনীতি মেনে নিয়োগের দাবি জানান। অন্যথায় আগামীতে এ নিয়োগকে কেন্দ্র করে রেলওয়ের শ্রমিক কর্মচারীদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি গড়ে তোলার হুশিয়ারী দেন বক্তারা।
পরে রেলওয়ে শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাধায়কের (ডিএস) মাধ্যমে দেয়া স্মারকলিপিতে রেলওয়ে বিভাগে সুইপার পদে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে নিয়োগ অবিলম্বে বাতিলের দাবি জানানো হয়। সেই সঙ্গে নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত রেলওয়ে কর্মকর্তাদের চিহিৃত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানানো হয়েছে। সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক (ডিএস) নুর আহাম্মদ হোসেন রেলওয়ে শ্রমিক লীগের দেয়া স্মারকলিপিটি গ্রহণ করে যথাযথভাবে মহাপরিচালক বরাবরে দ্রুত পাঠানোর আশ্বাস দেন।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close