ওপারবাংলা

২০২০-মিসেস ইন্ডিয়ায় পশ্চিমবঙ্গের মেয়ের জীবন কাহিনী পড়ুন

অনলাইন ডেস্ক:  ২০২০-মিসেস ইন্ডিয়ায় পশ্চিমবঙ্গের একমাত্র ফাইনালিস্ট ভোটবাড়ী সীতানাথ উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুল শিক্ষিকা তানিয়া সরকার। পশ্চিমবঙ্গর জলপাইগুড়ি জেলার ব্যাস্ততম শহর ধূপগুড়ি। অজানা কে জানার,  অধরা কে ধরার ইচ্ছা তানিয়া দেবীর চিরকালের।  জলপাইগুড়ি জেলার পাশ্ববর্তী জেলা কোচবিহারের পুন্ডিবাড়ি এলাকার মেয়ে তানিয়া সরকার বর্তমানে বিবাহসূত্রে ধূপগুড়ির ক্ষুদিরাম পল্লীর বাসিন্দা। তানিয়া সরকার পেশায় কোচবিহার জেলার সীমান্তবর্তী মহকুমা মেখলিগঞ্জের ভোটবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় অবস্থিত ভোটবাড়ী সীতানাথ উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইতিহাসের  শিক্ষিকা। আর পাঁচটি সাধারণ পরিবারে জন্মেও শুধু মাত্র নিজের ইচ্ছা শক্তির জোরে বর্তমানে রাজ্যবাসীর কাছে অতি পরিচিত মুখ তানিয়া সরকার। জীবন যুদ্ধে অপরাজিতা তানিয়া সরকারের বাড়ি থেকে বিদ্যালয়ের দূরত্ব প্রায় ১০০ কিমি। তানিয়া সরকারের সকাল শুরু হয় শরীর চর্চার মাধ্যমে। এরপর যত বেলা গড়ায় তানিয়া সরকার ততই মেতে ওঠেন তার জীবন যুদ্ধে। রোদ ,  জলে  কিংবা ঘন কুয়াশার চাদর কেউই দমাতে পারেনা তানিয়া সরকারের অটুট আত্মবিশ্বাস কে।  তানিয়া দেবীর পরিবারে তার স্বামী বিভাষ সরকার রয়েছেন যিনি পেশায় একজন চাকরিজীবী। আর রয়েছে পাঁচ বছরের মেয়ে  হৈমদ্রিতি সরকার। বাড়ির সমস্ত কাজ শেষ করে তিনি রওনা দেন তার বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে। দিনের বেশীর ভাগ সময়টা বিদ্যালয়ে কাটিয়ে যখন বাড়ি ফেরেন তখনও সংসারের বিভিন্ন প্রয়োজন তার জন্য দু-হাত তুলে অপেক্ষা করে। মিসেস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ডে পৌঁছেছেন তিনি। তাও আবার পশ্চিমবঙ্গ  রাজ্য থেকে তিনিই একমাত্র ফাইনালিস্ট। তার এ লড়াই শুরু গত বছর অক্টোবর মাস থেকে। বেশ কয়েকটি বাছাই ও প্রতিযোগিতার ধাপ অতিক্রম করে দেশের ১৪ হাজারেরও বেশি প্রতিযোগিনীর মধ্যে আপাতত তিনি ফাইনাল রাউন্ডে  জায়গা দখল করতে সক্ষম হয়েছেন। এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে কি হয় সেটার অপেক্ষায় অধীর আগ্রহে রাজ্যবাসী। রাজস্থানের জয়সলমীরে চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হবে বলে সূত্র অনুযায়ী জানা গেছে। কিন্তু দেশের করোনা পরিস্থিতির জন্য ঠিক কবে চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হবে তা এখনও নিশ্চিত ভাবে কিছু জানায়নি কর্তৃপক্ষ। তবে যে সময়েই চূড়ান্ত পর্ব  অনুষ্ঠিত  হোক না কেন, প্রস্তূতি কিন্তু থেমে নেই তানিয়া সরকারের । সাঁতার, যোগ, পার্সোনালিটি ডেভলপমেন্ট, ডায়েটিং চলছে পুরোদমে ।
তানিয়া সরকার জানান বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির জন্য স্কুল বন্ধ রয়েছে তবে যখন স্কুল খোলা ছিল তখন ভোরে উঠে শরীরচর্চার পর  মেয়েকে মর্নিং স্কুলে পাঠিয়ে স্বামীর অফিস আর নিজের স্কুলে যাওয়ার প্রস্তূতি সেরে স্কুলে বেড়িতে পড়তাম। ফিরে এসে আবার যোগ, শরীরচর্চা ও পড়াশোনা। সেই সাথে মেয়ের হোমওয়ার্ক আর বাড়ির কাজ তো করতেই হয়। তবে পরিবারের সাহায্য আর সাহস না পেলে এতদূর এগোনো সম্ভব হতো না। তিনি আরও জানান স্বামী বিভাষ সরকার তাকে সব রকম ভাবে সহযোগিতা করেন ও উৎসাহ দেন প্রতিটি কাজে। মেয়ে হৈমাদ্রিতির ভালোবাসাই তাকে এগিয়ে চলার প্রেরণা জোগায।

Show More

News Desk

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক মন্ডলির সভাপতি।

Related Articles

Back to top button
Close